যে পাঁচটি কারণে এত সুন্দর ক্যাটরিনা

বলিউড জনপ্রিয় নায়িকা ক্যাটরিনা কাইফ কতটা সুন্দরী সেটা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। শুরু রূপালি পর্দায় নয় মেকআপ ছাড়াও সুন্দরী তিনি। বছরের পর বছর সেই একই রকম রয়ে গেছেন এই নায়িকা। তার রূপের রহস্য আসলে কী? কীভাবে নিজেকে ফিট রাখেন তিনি। তার ভক্তরা অনেকেই জানতে চান এ বিষয়ে।

শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে বেশ সচেতন ক্যাটরিনা কাইফ। নিয়মিত শরীর চর্চা করেন তিনি। মাঝে মধ্যে সেই সব শরীর চর্চার ভিডিও প্রকাশ করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার নিজের সৌন্দর্যের পাঁচ রহস্য ফাঁস করলেন তিনি।

ক্যাটরিনা কাইফ বলেন, ‘আমার লক্ষ্য মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতার মধ্যে ভারসাম্য তৈরি করা। বর্তমানে আমি যোগাসনে বেশি মন দিয়েছি। শরীর ও মন সুস্থ রাখতে এর কোনো জুড়ি নেই।’

সুন্দর থাকতে হলে কী করতে হবে? পাঁচটি উপায় বলে দিলেন ক্যাটরিনা। তিনি বলেন, ‘এমন কোনো কাজ বেছে নিন যেটা আপনার ভালো লাগে। ফিটনেস প্ল্যানের প্রতি যদি প্যাশন না থাকে, তাহলে বেশিদিন চালানো যায় না। নিজের শরীরকে চিনে নিন। প্রত্যেকের সহ্যশক্তি এক হয় না। তাই আমার জন্য যেটা ঠিক পরিকল্পনা, আপনার জন্য সেটা নাও হতে পারে। শরীর চর্চার মাঝে বিশ্রাম নিন।’

ক্যাটরিনা কাইফ বলেন, আমি কড়া ডায়েট মেনে চলি না। তবে সন্ধ্যা ৭টার পর আর ভারী কোনো খাবার খাই না। আমি প্রোটিন, সবজি, ভাত, আলু, রাঙাআলু এ সবই পরিমাণ মতো খাই। তবে ভাজাভুজি, দুধের প্রোডাক্ট, গ্লুটেন, গমের তৈরি খাবার এবং রিফাইন্ড চিনি এড়িয়ে যাই সম্পূর্ণ।

প্রতিদিনই নিয়ম করে এক্সারসাইজ করুন। যেদিন জিমে যেতে ইচ্ছা করছে না, সেদিন হালকা ফ্রি হ্যান্ড অথবা যোগাসন অভ্যাস করুন।

ভারতের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ড

দেখতে দেখতে প্রায় শেষের দিকে চলে এলো বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর। আজ ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে অনুষ্ঠিত হচ্ছে টুর্নামেন্টের প্রথম সেমিফাইনাল। যেখানে ফাইনালের ওঠার জন্য লড়বে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। অর্থাৎ ভারত প্রথমে বোলিং করবে।

ভারতীয় একাদশ : রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রিশাভ পান্থ, এমএস ধোনি (উইকেটরক্ষক), হার্দিক পান্ডিয়া, দিনেশ কার্তিক, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল, জসপ্রিত বুমরাহ।

নিউজিল্যান্ড একাদশ : মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেলর, টম লাথাম (উইকেটরক্ষক), জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্রান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, লুকি ফার্গুসন, ট্রেন্ট বোল্ট।

আলোচিত ‘স্টেপ সাগর’ গ্রেফতার

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের আতংক এবং সম্প্রতি শ্রীমঙ্গল পৌর মেয়রের ভাতিজা নটরডেম কলেজের মেধাবী ছাত্র অন্তরকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করার ঘটনায় সহযোগিসহ আলোচিত ‘স্টেপ সাগর’ (১৬) কে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার বিকেলে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুরের তেলিয়াপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় তার সহযোগি দীপ সাগরকেও গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাদের স্বীকার উক্তি মোতাবেক শহরের গুহ রোডের বনশ্রী নার্সারী থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় তাদের ব্যবহৃত বেশ কয়েকটি দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে দুইটি রাম দা, একটি লম্বা ছুরি ও তিনটি চাকু রয়েছে।

এদিকে স্টেপ সাগরকে সহযোগিসহ গ্রেফতার ও দেশিয় অস্ত্র উদ্ধারের পর রাত নয়টায় তাৎক্ষনিকভাবে স্থানীয় সাংবাদিকদের সামনে হাজির করে ব্রিফ করেন শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফুজ্জামান।

এসময় তিনি বলেন, ‘তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হবিগঞ্জের মাধবপুর এলাকায় গত দুই দিন ধরে প্রচেষ্টা চালিয়ে শ্রীমঙ্গলবাসীর কাছে যে আতংক ছিল এবং স্টেপ সাগর নামে পরিচিত বহুল আলোচিত কিশোর সন্ত্রাসী ও সম্প্রতি অন্তরকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করার প্রধান আসামি ‘স্টেপ সাগর’কে তার সহযোগিসহ হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুরের তেলিয়াপাড়ার সুরমা নয়া হাটির তার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করি। পরবর্তিতে তার স্বীকার উক্তি মোতাবেক শহরের গুহ রোডের বনশ্রী নার্সারী থেকে রাত নয়টার দিকে পরিত্যক্ত অবস্থায় তাদের ব্যবহৃত দেশিয় অস্ত্রগুলো উদ্ধার করি।’ এ নিয়ে স্টেপ সাগর গ্রুপের মোট চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান।

জানাযায়, অল্পবয়সী এ কিশোরটি শ্রীমঙ্গলবাসীর কাছে এক আতঙ্কের নাম হয়ে উঠছিল। একের পর এক সে হাত হামলা চালানোর পাশাপাশি কারো সাথে বিরোধ বাঁধলেই স্টেপ করে রক্ত ঝরাচ্ছিল। বেপরোয়া এই কিশোর নিজের কর্মকান্ডে কারণে ‘স্টেপ সাগর’ নামেও পরিচিত শ্রীমঙ্গলবাসীর কাছে। এ বিষয়ে ভয়ে কেউ মুখ খোলেনি এতে দিনে দিনে সে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠছিল।

পুলিশ জানায়, ২০১৭ সালে ১১ নভেম্বর একই স্থানে রেবতী স্টলের সামনে সন্ধ্যা ৬টায় কলেজ সড়কের বাসিন্দা সৈয়দ মুর্শেদ সালেহীন নাবিল রিক্সা যোগে বাসায় ফেরার পথে সাগর তার গতিরোধ করে রামদা দিয়ে কুপিয়ে বাম পা ও হাতের কবজি কেটে রক্তাক্ত জখম করে। সে পঙ্গুত্ব জীবনযাপন করছে। ওই মামলটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। এ ঘটনার কিছুদিন পর পৌর কমিশনার আলকাছ মিয়ার ছেলে বদরুজ্জমান নাইমকে কোর্ট সড়কে আটকিয়ে সাগর একই কায়দায় মারধর করে। এক পর্যায়ে তার হাতে থাকা দা দিয়ে কোপ দিলে কোনোমতে পালিয়ে বেঁছে সে প্রাণে রক্ষা পায়।

সর্বশেষ সে গত ২৭জুন শহরের কলেজ সড়কের তৃষাণ হেয়ার ফ্যাশন সেলুনের সামনে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার বর্তমান মেয়র মো. মহসীন মিয়া মধুর ভাতিজা এবং আতিকুর রহমান জরিপ মিয়ার ছেলে ইমানী হোসেন অন্তরকে কুপিয়ে তার বাম হাতের সবকটি রগ কেটে মারাত্মকভাবে জখম করে। বর্তমানে অন্তর ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে।

ঘটনার পর অন্তরের বড় ভাই মোশারফ হোসেন রাজ ওই দিন রাতেই শহরের সাগর মিয়া, ইমন মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ কে আসামি করে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর পর থেকে তারা পলাতক ছিল।

নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন সেক্টরে চলছে চাঁদাবাজি

নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন সেক্টরে চলছে নীরব চাঁদাবাজি। সরকারি দলের মাঠপর্যায়ের অনেক পাতি নেতা দলের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন খাত থেকে চাঁদা আদায় করছেন। নারায়ণগঞ্জে চাঁদাবাজি হচ্ছে এমনটা স্বীকার করে সংসদে অভিযোগ তুলেছেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান। নারায়ণগঞ্জে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

চাঁদাবাজির বিষয়ে সংসদে শামীম ওসমান কথা বলার পর এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জে শুরু হয় ব্যাপক আলোচনা। কারা নারায়ণগঞ্জে চাঁদাবাজি করছে তা নিয়ে কথা বলা শুরু করেছেন অনেকে। কেউ কেউ বলছেন, শামীম ওসমানের মতো প্রভাবশালী নেতার মুখে এমন কথা বের হওয়ার পর প্রমাণ হচ্ছে ‘বাঘের ঘরে ঘোগের বাসা’।
এর আগেও নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ নারায়ণগঞ্জের চাঁদাবাজির বিষয়ে কথা বলেছেন। নৌপথে চাঁদাবাজি ঠেকাতে এক মন্ত্রীর সাথে বাদানুবাদ করতে হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন তিনি।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় এসপি হারুণ অর রশিদ বলেছিলেন, নৌপথে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা তোলা হচ্ছে। এক মন্ত্রী ফোন করে বলেছেন, তার লোকজন এখানে করে খায়। আমি পাল্টা প্রশ্ন করি কেন আপনার নাম ব্যবহার করে, কেন এ চাঁদার টাকাটা তোলা হচ্ছে? আপনার লোকজনকে কি চাঁদাবাজি করে খেতে দেবো নাকি? এতে আপনি আমার প্রতি মনক্ষুণœ হলেও আমার কিছু হবে না। কাগজপত্র ছাড়া নৌপথে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার চাঁদাবাজি হচ্ছিল। চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য বেড়েই চলেছিল। নৌপরিবহন মন্ত্রীর সাথেও এ ব্যাপারে কথা বলেছি। অবশেষে সেই চাঁদাবাজি বন্ধ করতে আমরা সক্ষম হয়েছি।

তবে পুলিশ সুপার নারায়ণগঞ্জে চাঁদাবাজি বন্ধে তৎপর রয়েছেন। যখনই খবর পেয়েছেন চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে গিয়েছেন। গত কয়েক মাসে বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেফতার করেছেন অর্ধশত চাঁদাবাজ। চাঁদাবাজির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার করেছেন সিটি করপোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু। ওই কাউন্সিলর জেল খেটে বর্তমানে জামিনে আছেন।

তবে নারায়ণগঞ্জের চাঁদাবাজি নিয়ে আবার আলোচনা শুধু হয়েছে সংসদে শামীম ওসমান কথা বলার পর। রোববার আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান তার এলাকায় ব্যাপক চাঁদাবাজির অভিযোগ করে এই চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। জাতীয় সংসদের অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তিনি এ দাবি জানান। এ সময় সভাপতিত্ব করছিলেন ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া।

শামীম ওসমান বলেন, পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে শামীম ওসমানের এলাকায় ব্যাপক চাঁদাবাজি হচ্ছে। আমি সব সময় সত্য কথা বলি, যেটা অন্যায়, যেটা মিথ্যা তার প্রতিবাদ করি। পত্রিকায় যেটা লেখা হয়েছে সেটা সত্য। আমার এলাকায় প্রায় ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সরকারি অফিসারদের কোয়ার্টার নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে একটি খেলার মাঠ আছে। মাঠটি সংরক্ষণের অনুরোধ করেছিলাম, সেটি রাখা হয়েছে। খেলার মাঠের জন্য ১২ কোটি টাকা অনুদানও হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ সেখানে যে ওয়াকওয়ে নির্মাণ করেছিল সেখানে একটি চাঁদাবাজ গোষ্ঠী চাঁদা আদায় করছে। ওয়াকওয়েটা পুরোপুরি ভেঙে ফেলা হয়েছে। সেখানে খেলার মাঠের নাম করে শ্রমিকদের কাছ থেকে এক-দুই টাকা করে চাঁদা নেয়া হচ্ছে। চাঁদাবাজি করার লোকের অভাব নেই। ওখানে তিন বছর ধরে একটি প্রকল্প নেয়া হয়েছে। যারা টেন্ডার নিয়েছেন সন্ত্রাসীদের জন্য তারা কাজ করতে পারছেন না। সেখানে প্রতিদিন চার-পাঁচ টাকা লাখ চাঁদা আদায় হয়। শামীম ওসমান আরো বলেন, সন্ত্রাসীদের হাত কত লম্বা, দাঁত কত শক্ত, তারা এই সাহস পায় কোথা থেকে? সন্ত্রাসীদের এই শক্তির উৎস কোথায়? তারা যত বড় শক্তিশালীই হোক তাদের বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে ব্যবস্থা নিয়ে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানাচ্ছি।
জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জে পরিবহন সেক্টরে সবচেয়ে বেশি চাঁদাবাজি হচ্ছে। বিভিন্ন সড়কে ইজিবাইক থেকে প্রতিদিন কয়েক লাখ টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে। সরকারি দলের বিভিন্ন স্তরের নেতা পরিচয়ে এ চাঁদা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা। প্রধান সড়ক ছাড়াও পাড়া-মহল্লার সড়কের চাঁদা দিয়ে চলতে হয় ইজিবাইক। প্রতিদিন কয়েক হাজার ইজিবাইক চলে জেলার বিভিন্ন রুটে। প্রতিটি ইজিবাইককে প্রতিদিন ১৫০ টাকা চাঁদা দিতে হয়। ইজিবাইক ছাড়াও মহাসড়ক ও আঞ্চলিক সড়কের পরিবহন সেক্টরে চলে চাঁদাবাজি।

এ দিকে সড়কে চাঁদাবাজি যেমন বেড়েছে, আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর তৎপরতাও বেড়েছে। গত ২ জুলাই সিদ্ধিরগঞ্জে পরিবহনে চাঁদাবাজির অভিযোগে করা মামলায় শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও জাসদের চার নেতাকে শিমরাইলে গ্রেফতার করেছে র্যাব। এরা হলো সিদ্ধিরগঞ্জ আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সভাপতি আব্দুস সামাদ বেপারি, জাসদের (ইনু) সিদ্ধিরগঞ্জ থানা সভাপতি এস এম মাসুদ রানা, থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইলিয়াস মোল্লা ও জহিরুল হক।

র্যাব-১১ সহকারী পরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলেপ জানান, তারা দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ও নারায়ণগঞ্জ-আদমজী-শিমরাইল সড়কের শিমরাইল মোড় এলাকায় বিভিন্ন পরিবহনে চাঁদাবাজি করে আসছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করেছেন। গত ২ জুন নারায়ণগঞ্জের শিমরাইল মোড় কাঁচপুর ও মদনপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৯ পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করে র্যাব। এর আগে গত ৩১ মে রাতের অভিযানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল ও সাইন বোর্ড এলাকা থেকে চাঁদাবাজির সময় ১৩ জনকে আটক করে র্যাব।

নারায়ণগঞ্জে আরেক চাঁদাবাজির খাত হকারদের নিয়ে। এ ইস্যুতে বিভিন্ন সময় উত্তপ্ত হয়েছিল। নারায়ণগঞ্জে হকার ইস্যুর নেপথ্যে রয়েছে কোটি টাকার চাঁদাবাজি। আর এই চাঁদার টাকার ভাগ যায় হকার নেতা, রাজনৈতিক নেতা, প্রভাবশালী ও কথিত সাংবাদিকদের পকেটে। ফলে কখনই স্থায়ীভাবে ফুটপাথ হকারমুক্ত হয়নি। বছরের পর বছর ধরে উচ্ছেদের নামে চলে ইঁদুর-বিড়াল খেলা। সিটি করপোরেশন সকালে উচ্ছেদ করলে বিকেলে যেই সেই। আবার যে যার মতো বসে পড়ে। তবে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ পুুলিশ সুপার ফুটপাথ হকার মুক্ত রাখার উদ্যোগ নিয়ে সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছেন।

জিরো পয়েন্ট থেকে সরানো হচ্ছে জিপিও ভবন

স্টাফ রিপোটার: রাজধানীর জিরো পয়েন্ট থেকে, জেনারেল পোস্ট অফিস-জিপিও, ভবন আগারগাও-এ স্থানান্তর করা হবে। স্থানটি সবুজায়ন করে খোলা মাঠ তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একেনেক সভায় তিনি বলেন, ভবিষ্যতে বায়তুল মোকাররম মসজিদের কাজে, এই স্থান ব্যবহার করা হবে।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, একনেক সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে খরচ হবে সাত হাজার ৭৪৪ কোটি টাকা।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে স্থানীয় যানবাহনের জন্য, আলাদা লেন নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর অংশ হিসেবে ঢাকা-উথুলী-পাটুরিয়া জাতীয় মহাসড়ক প্রশস্ত করা হবে। আমিনবাজার থেকে পাটুরিয়া ঘাট পর্যন্ত বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সার্ভিস লেন ও বাস-বে নির্মাণের উদ্যোগ নেবে, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। বগুড়া-নাটোর জাতীয় মহাসড়ক এবং ২টি জেলা মহাসড়কের মানোন্নয়নে থাকছে আলাদা প্রকল্প।

তিনি বলেন, মহাসড়কের পাশে সরকার জায়গা নির্ধারণ করে দেবে। এসব স্থানে উদ্যোক্তারা, ফিলিং স্টেশন বা রেস্টুরেন্ট তৈরি করবেন।

সূত্র: যমুনা টিভি

নাজমুল হুদা দম্পতির আগাম জামিন

স্টাফ রিপোটার: দুর্নীতি দমন কমিশনের করা মামলায় তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ও তার স্ত্রী সিগমা হুদার বিরুদ্ধে আগাম জামিন বর্ধিত করেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এর আগে সোমবার নাজমুল হুদার এক আবেদন নিষ্পত্তি করে ওই মামলাটির তদন্ত চার মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে দুদককে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার খুরশীদ আলম খান বলেন, ২০০৮ সালের ১৮ জুন রাজধানীর মতিঝিল থানায় নাজমুল হুদা দম্পতির বিরুদ্ধে যমুনা সেতুর পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে মামলাটি করে দুদক।

কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন সাবেক এমপি রানা

জামিনে মুক্তি পেয়েছেন টাঙ্গাইলের আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা।

দুটি হত্যা মামলায় প্রায় তিন বছর আটক থাকার পর আজ মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে তিনি কারাগার থেকে বের হয়ে আসেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টাঙ্গাইল জেলা কারাগারের জেলার আবুল বাশার।

মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলায় রানাকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন গত ১ এপ্রিল আপিল বিভাগেও বহাল থাকে। কিন্তু টাঙ্গাইলের যুবলীগের দুই নেতা হত্যার মামলায় জামিন না হওয়ায় তার মুক্তি মিলছিল না।

ওই মামলাতেও টাঙ্গাইল-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য রানাকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন সোমবার বহাল রেখে আদেশ দেয় আপিল বিভাগ। সেই জামিনের কাগজ কারাগারে পৌঁছানোর পর মুক্তি মিললো আলোচিত এই আসামির।

মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ফারুক আহমদ হত্যা মামলায় দীর্ঘ ২২ মাস পলাতক থাকার পর গত ২০১৬ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন সাবেক এমপি রানা। তবে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

খালেদা জিয়াকে ওকালতনামায় স্বাক্ষর করতে না দেয়ায় পাচঁজনকে আইনি নোটিস

স্টাফ রিপোটার: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ওকালত নামায় স্বাক্ষর করতে না দেয়ায় স্বরাষ্ট্র সচিবসহ পাচঁজনকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সাল কামাল রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এ নোটিস পাঠান।

স্বরাষ্ট্র সচিব, ঢাকা জেলা প্রশাসক, পুলিশ প্রধান, আইজি প্রিজন ও কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের সুপার বরাবর এ নোটিস পাঠানো হয়।

৪৮ ঘন্টার মধ্যে প্রয়েজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে যথাযথ আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে নোটিসে উল্লেখ করা হয়।

কায়সার কামাল বলেন, বেগম জিয়া দীর্ঘ দিন ধরে কারাগারে আছেন। আইনগত অধিকার থেকে বার বার তাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। তাকে ওকালত নামায় পর্যন্ত স্বাক্ষর করতে দেওয়া হচ্ছে না। যেটা একজন বন্দির অধিকারের পড়ে। এটা তার আইনগত অধিকার, সাংবিধানিক অধিকার।

মালিবাগ-রামপুরা-বাড্ডায় সড়ক অবরোধ

স্টাফ রিপোটার: রাজধানীর মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডাসহ বেশ কয়েকটি পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করে রেখেছে রিকশাচালকরা। তাদের দাবি রাজধানীর সব সড়কে রিকশা চলাচলের অনুমতি দিতে হবে।

মঙ্গলবার সকাল ৮টায় রাজধানীর রামপুরার ওয়াপদা রোড, উত্তর বাড্ডা ও কুড়িল বিশ্বরোডের সড়কের একপাশে অবরোধ কর্মসূচি পালন করছেন তারা। এসময় ‘সড়ক আছে যেখানে রিকশা চলবে সেখানে’, চলবে চলবে রিকশা চলবে’ স্লোগান দিতে দেখা যায় রিকশাচালকদের। খবর যুগান্তর

রিকশাচালক কাদের বলেন, সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের প্রতিবাদে আমাদের আন্দোলন চলছে। সকাল ৮টা থেকে আন্দোলন শুরু হয়েছে। চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। এর মধ্যে দাবি না মানলে আগামীকাল বুধবার সাত ঘণ্টা সড়কে আন্দোলনে থাকব। বাড্ডা থানার ডিউটি অফিসার এসআই মান্নান জানান, সড়কে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। রিকশাচালকরা সকাল ৮টা থেকে উত্তর বাড্ডার ফুজি টাওয়ারের সামনে অবস্থান নেন।

ঘটনাস্থলে ওসি রফিকুল ইসলামসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আছেন। তাদের সঙ্গে কথা বলে রিকশাচালকদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। এর আগে সোমবার সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর মুগদায় সড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন রিকশাচালকরা। গত ৩ জুলাই ডিএসসিসির নগর ভবনে ঢাকা ট্রান্সপোর্ট কন্ট্রোল অথরিটি (ডিটিসিএ) গঠিত কমিটির এক বৈঠকে তিনি এ ঘোষণা দেন।

এর পর রোববার থেকে রাজধানীর তিনটি সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে গাবতলী থেকে মিরপুর রোড হয়ে আজিমপুর ও সায়েন্সল্যাব থেকে শাহবাগ পর্যন্ত এবং কুড়িল থেকে বাড্ডা, রামপুরা, খিলগাঁও হয়ে সায়েদাবাদ পর্যন্ত প্রধান সড়কে রিকশা চলতে দেয়া হচ্ছে না। তবে এসব সড়কের সঙ্গে সংযোগকারী রাস্তাগুলোতে শুধু সিটি কর্পোরেশনের অনুমোদন পাওয়া রিকশা চলাচল করতে পারবে।

মেহজাবিনের গল্পে

মেহজাবিন চৌধুরী ছোটপর্দার এই সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ও আলোচিত অভিনেত্রী। ক্যারিয়ারে এ যাবৎ নানা বহুমাত্রিক চরিত্রে অভিনয় করে নিজেকে একজন ভার্সেটাইল অভিনেত্রীতে পরিণত করেছেন। এবারই প্রথম তিনি তার নিজের গল্প ভাবনায় নির্মিত একটি নাটকে অভিনয় করেছেন। নাটকের নাম ‘আবারো স্বপ্ন দেখি’। এই নাটকে মেহজাবিন দু’টি বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। এর মধ্যে একটি হচ্ছে- পেশাগতভাবে প্রত্যেকেই পরিশ্রম অনুযায়ী ন্যায্য পারিশ্রমিক পান না। আর অন্যটি হচ্ছে ঈদকে ঘিরে বিভিন্ন ধরনের পেশাজীবী মানুষের নানা ধরনের পরিকল্পনা থাকে। চাওয়া-পাওয়া থাকে।কিন্তু সব চাওয়া-পাওয়া কি পূরণ হয় মানুষের? এই দু’টি বিষয়ই মেহজাবিন তার ‘আবারো স্বপ্ন দেখি’ নাটকে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। নাটকটি নির্মাণ করেছেন মাহমুদুর রহমান হিমি। গতকাল নাটকটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এতে প্রথমবারের মতো শ্যামল মাওলার সঙ্গে অভিনয় করেছেন মেহজাবিন। এ অভিনেত্রী জানান, নাটকটিতে তিনি কাজের বুয়ার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। শ্যামল মাওলা অভিনয় করেছেন ড্রাইভারের চরিত্রে। নির্মাতা মাহমুদুর রহমান হিমি জানান,  আগামী ঈদে একটি স্যাটেলাইট চ্যানেল এবং হিয়া এন্টারটেইনমেন্টের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার হবে নাটকটি।