রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন

সাংবাদিকের চোখ তুলে নেয়ার হুমকি ছাত্রলীগ নেতার

রাজশাহী প্রতিনিধি:
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২৯

তুচ্ছ কারণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) কর্মরত এক সাংবাদিককে চোখ তুলে নেয়ার হুমকি দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই নেতা। গতকাল শুক্রবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান হলে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী আব্দুর রহমান আশিক ভোরের পাতার রাবি প্রতিনিধি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। ঘটনাস্থলে উপস্থিত ডেইলি স্টারের রাবি প্রতিনিধি আরাফাত রহমান প্রতিবাদ করলে তাকেও দেখে নেয়ার হুমকি দেন ওই ছাত্রলীগ নেতারা।

অভিযুক্তরা হলেন- রাবি ছাত্রলীগের উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক হাশেম ও উপ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক হক।

সাংবাদিক আব্দুর রহমান আশিক বলেন, বিষয়টি ইতোমধ্যেই আমি হল প্রাধ্যক্ষকে জানিয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সাংবাদিক আব্দুর রহমান আশিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান হলের প্রথম ব্লকের আবাসিক শিক্ষার্থী। রাতে হঠাৎ রুমে নক করার শব্দ শুনে তিনি রুম খুলে দিলে ওই দুইজন রুমে ঢুকেন। তার রুমমেট কবে হল থেকে যাবে এটা জিজ্ঞাসা করলে তিনি উত্তরে বলেন, ‘আমি তো জানি না। উনি তো এখন ঘুমাচ্ছেন। আপনারা পরে এসে জেনে নিয়েন।’ এ সময় তারা আশিককে বলেন- ‘পরে আসব মানে, তুই চোখ নামিয়ে কথা বল, তোর চোখ তুলে নেব।’ পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আরেক সাংবাদিক কি হয়েছে জানতে চাইলে, তুই-তোকারি করে তাকেও দেখে নেয়ার হুমকি দেন তারা।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিক আরাফাত রহমান বলেন, আমি বিষয়টি জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা হাশেম আমাকে উদ্দেশ্য করে বাজেভাবে তুই-তুকারি করে কথা বলা শুরু করে। আমি কেন ওখানে গেছি, বলে পাল্টা প্রশ্ন করে। একপর্যায়ে সে ‘তোকে দেখে নেবো’, ‘যা করার করে নিস পারলে’ বলে মারতেও উদ্যত হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সহায়তায় পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এ বিষয়ে রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, আমি বিষয়টি শুনেছি। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সঙ্গে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় বলেন, ইতোমধ্যেই আমি এই বিষয়ে অবগত হয়েছি। ছাত্রলীগের নামে এ ধরনের কাজ আমরা কখনোই সমর্থন করি না। আমি অতিদ্রুত এটার তদন্তের বিষয়ে রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..