শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন

যাত্রাবাড়ী পাইকারী মার্কেটে হোটেল পপুলারের বিরুদ্ধে অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ২০

রাজধানীর থানাধীন পাইকারী মার্কেটের ৩য় তলায় আবাসিক হোটেল পপুলারের অসামাজিক বাণিজ্যসহ নানা অপকর্মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগের ভিক্তিতে সংবাদকর্মীরা ধরাবাহিক প্রতিবেদনসহ যাত্রাবাড়ী থানায় গত ১০.০২,২০ ইং তারিখে একটি অভিযোগ দ্বায়ের করেন। অভিযোগটি ওসি অপারেশনের নিকট তদন্তর জণ্য দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। তবুও তার কোর অগ্রগতি নেই বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

সম্প্রত্তি, রাজধানীজুড়ে পুলিশের কঠোর নজরদারীতে থাকলেও বন্ধ হচ্ছে না এসব আবাসিক হোটেল ব্যবসার অন্তরালে চলছে মাদক, পতিতা ও জুয়ার আসর। প্রশাসন ও স্থানীয় লোকজনকে ফাঁকি দিতে এসব অবৈধ ব্যবসায়ীরা বার বার হোটেলের নাম পরিবর্তন করলেও পরিবর্তন হয়নি ব্যবসার ধরণ। পুলিশ ও স্থাণীয় সরকার দলের নেতাদের নাম ব্যবহার করে সূ-কৌশলে মাদক,জুয়া ও পতিতা ব্যবসা চালিয়ে আসছে অনুমোদনহীন আবাসিক হোটেল পপুলার নামক প্রতিষ্ঠানটি।

এদিকে গতকাল জাতীয় দৈনিক অনলাইন ক্রাইম এক্সপেসের একটি প্রতিনিধিদল প্রতিষ্ঠানটিতে তদন্ত করতে গেলে স্বামী- স্ত্রী বানিয়ে রেজিষ্ট্রী খাতায় অবৈধ লিপিবদ্ধ  করে স্বর্ট গেষ্ট বানিয়ে ঘ্ন্টা ভিক্তিক রুম ভাড়া  বিভিন্ন অপকর্মের সত্যতা পাওয়া যায়। এবং তাৎখনিক থানা কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে তার কোন প্রতিফলন দেখা যায়নি।

এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, উক্ত প্রতিষ্ঠানে মালিক কর্তৃপক্ষ মাদক,পতিতা সহ নানা অসামাজিক কাজের সাথে জড়িত রয়েছে। তাছাড়া এদের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধরনের একাধিক মানব পাচার মামলাও রয়েছে। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী সহ তরুন যুবকদের মাঝে এসব অসামাজিক কর্মকান্ডের প্রভাব পড়ছে প্রতিষ্ঠানটির কারনে। এমনকি ব্ল্যাক-মেইলের শিকারও হচ্ছেন অনেকে। এমনকি এলাকার সামাজিক ভারসম্য নষ্ট হয়ে পড়ছে। তাছাড় হোটেল মালিক শহিদুল-সাজ্জাদ বলেন, আমরা থানা পুলিশকে প্রতিমাসে মাসোহাড়া দিয়েই ব্যবসা করি। বিষয়টি তাদের নলেজে দেওয়া আছে। আরো বিস্তারিত আছে…

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..