বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার

স্টাপ রিপোটার:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৪৩

সাভারের আশুলিয়ায় পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে পোশাক শ্রমিক এক নারী। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আসাদুল শেখ নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। গতকাল দুপুরে গ্রেপ্তারকৃত ওই ধর্ষককে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ভুক্তভোগী নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গত রোববার দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আশুলিয়ার বসুন্ধরাটেক এলাকায় একটি বাড়ির চতুর্থ তলায় এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। আটক আসাদুল শেখ (৩২) নাটোর সদর জেলার তেবাড়িয়া গ্রামের সাদেক আলী শেখের ছেলে। সে আশুলিয়ার বাইপাইল বসুন্ধরাটেক এলাকার শাহিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গণধর্ষণের শিকার ওই নারী শ্রমিক আশুলিয়ার বাইপাইল বসুন্ধরাটেক এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন।

কিছু  দিন পূর্বে পার্শ্ববর্তী বাবর আলীর বাড়ির ম্যানেজার মুসলিম উদ্দিন তার কাছ থেকে দুই হাজার টাকা ধার নেয়। গত রোববার দুপুরে ওই নারী শ্রমিক ম্যানেজার বাবর আলীর কক্ষে ধারের পাওনা টাকা চাইতে যায়। এ সময় স্থানীয় বখাটে আসাদুল ও তার অজ্ঞাতপরিচয় আরো পাঁচ বন্ধু মিলে ওই নারী শ্রমিককে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে চতুর্থ তলায় একটি কক্ষে নিয়ে আটকে রাখে। এরপর ওই বখাটেরা পালাক্রমে নারী শ্রমিককে ধর্ষণ করে গভীর রাতে ভয় দেখিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী শ্রমিক আশুলিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসাদুল শেখ নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে। আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জিয়াউল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নারী শ্রমিককে গণধর্ষণের ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই নারী। এ ঘটনায় ধর্ষক আসাদুলকে গ্রেপ্তার করে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে অভিযুক্ত বাকিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..