রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন

নাটোরে এক রাতে নারী আনসারসহ চার জনের মৃত্যু একজন আটক

ফারুখ হোসেন আপন:
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৯
  • ২১
এক রাতের মধ্যে নাটোরের তিন উপজেলায় থেকে নারী আনসার সদস্যসহ চার জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন- জেলার লালপুর উপজেলার চংধুপইল গ্রামের আনসার সদস্য সাবিনা ইয়াসমিন, বৈদ্যনাথপুরের জাহিদুল ইসলাম, বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তিপুর গ্রামের রেহেনা এবং বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার দিয়াড়পাড়া মহল্লার প্রান্ত সরকার।
লালপুর থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চংধুপইল গ্রামের আনসার সদস্য সাবিনা ইয়াসমিন গতরাতে পূজা মন্ডপে ডিউটি শেষে বাড়ি ফিরে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে তার ঘরে লাশ পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে সাবিনার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার স্বামী শাহিনুরকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া লালপুর উপজেলার বৈদ্যনাথপুরের নিজ বাড়ি থেকে জাহিদুল ইসলাম নামে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জাহিদুল আত্নহত্যা করেছে বলে ধারণা পুলিশের।
এদিকে, বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তিপুর গ্রামের নিজ ঘর থেকে রেহেনা নামে ষাটোর্ধ বয়সী এক নারীর গলায় ওড়না পেচানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এসব ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে।
অপরদিকে, মঙ্গলবার বিকালে দূর্গাপূজার প্রতিমা বিসর্জনের আগে প্রান্ত বন্ধুদের সাথে বনপাড়া এলাকার বিহারীর বাড়িতে গিয়ে চোলাই মদ পান করে। পরিমাণে বেশি পান করায় কিছু সময় পরে প্রান্ত অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে বন্ধুরা তাকে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান।
বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নজমুল হক বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে জানান, অতিরিক্ত মদ পানে প্রান্ত মারা গেছে বলে হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে। বুধবার নিহতের লাশ উদ্ধার করে জিডি মূলে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..