বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

করোনার প্রভাবে চাপ বেড়েছে ফেসবুকে

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০২০
  • ১৪

করোনাভাইরাসের প্রভাবে যেসব দেশে দৈনন্দিন জীবন ব্যাহত হচ্ছে, সেখানে ডিজিটাল মাধ্যমে যোগাযোগের হার বেড়ে গেছে। এ তথ্য জানিয়েছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ। গত বুধবার কোভিড-১৯ নিয়ে ফেসবুকের প্রতিক্রিয়া জানাতে এ কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি বলেন, ইতালিসহ করোনাভাইরাসে গুরুতর আক্রান্ত অন্য দেশগুলোয় হোয়াটসঅ্যাপ এবং মেসেঞ্জারের ভয়েস কলের পরিমাণ স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি হয়েছে।

কোয়ারেন্টিনে থাকার সময়টাতে মানুষ ভার্চ্যুয়াল যোগাযোগের ওপর নির্ভর করছে বেশি। এতে বেড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ব্যবহার। ফলে ফেসবুকের সার্ভারগুলোতেও ডেটা আদান-প্রদানের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য হারে বেড়ে গেছে।

পরিস্থিতি সামাল দিতে সার্ভারগুলোর অবকাঠামো এবং কর্মক্ষমতা বাড়াতে কাজ করছে ফেসবুক। হোয়াটসঅ্যাপের জন্য ইতোমধ্যে সার্ভারের ক্ষমতা দ্বিগুণ করা হয়েছে। মার্ক জাকারবার্গ জানান, করোনাভাইরাসের ফলে বিশ্বজুড়ে যেসব দেশের নাগরিকেরা তাদের যোগাযোগের প্রাথমিক মাধ্যম হিসেবে হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক কিংবা ইনস্টাগ্রামের ওপর নির্ভর করছে, তাদের ক্ষেত্রে ফেসবুককে অবশ্যই তার অবকাঠামোগত ক্ষমতা আরো বাড়াতে হবে।

প্রসঙ্গত, প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে রবিবার পর্যন্ত সারাবিশ্বে ১৩ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন।

বাংলাদেশে নতুন তিনজনসহ এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ জন বলে জানিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। রবিবার আইইডিসিআর পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘আক্রান্তদের দুজন দেশের বাইরে থেকে এসেছেন এবং অপরজন বিদেশ ফেরত একজনের থেকে সংক্রমিত হয়েছেন। আক্রান্তদের একজনের বয়স ৪০ বছর এবং অপর দুইজনের বয়স যথাক্রমে ৩০ ও ২০।’

তিনি আরো বলেন, ‘গেল ২৪ ঘণ্টায় মোট ৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এই ভাইরাসে সংক্রমিত ২৭ জনের মধ্যে দুইজন মারা গেছেন। পাঁচজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন এবং ২০ জন চিকিৎসাধীন।’

তিনি জানান, ‘করোনার হট লাইনে গেল ২৪ ঘণ্টায় মোট ৩ হাজার ৮১২টি কল এসেছে। এরমধ্যে ৩ হাজার ৭২৫টি কল করোনা সংক্রান্ত

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..